১৪ জানুয়ারি বড়লেখায় আজহারীর মাহফিলে ৫ লক্ষ মানুষ হবে

  • আপডেট টাইম : January 06 2020, 17:55
  • 736 বার পঠিত
১৪ জানুয়ারি বড়লেখায় আজহারীর মাহফিলে ৫ লক্ষ মানুষ হবে

এমদাদুল হক:

বড়লেখার পরগনাহী দৌলতপুর সিনিয়র আলিম মাদ্রাসার বার্ষিক ওয়াজ মাহফিলের সমাপনী দিন ১৪ জানুয়ারি মৌলভীবাজারের বড়লেখায় যাচ্ছেন এ সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং আলোচিত বক্তা আল্লামা ড. মিজানুর রহমান আল আজহারী। ওই মাহফিলে অন্তত ৫ লক্ষ মানুষ সমাগম হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মাওলানা আজহারীর আগমন উপলক্ষে বড়লেখা ও পার্শবর্তী বিয়ানীবাজার এবং জুড়ি উপজেলায়ও চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি। শুধু বড়লেখা ও পার্শবর্তী উপজেলা নয়, গোটা সিলেট বিভাগ সহ দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকেও মুসল্লিরা আসার জন্য যোগাযোগ করছেন। ইতিপূর্বে ব্যানার, ফেস্টুন, তোরণ নির্মাণের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। চলছে মাঠ প্রস্তুতি ও প্যান্ডেলের কাজ। এ মাহফিলকে ঘিরে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের মধ্যে বিরাজ করছে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা।

আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব কাজী রমিজ উদ্দিন জানান,, বড়লেখার দৌলতপুর জামে মসজিদ সংলগ্ন মাঠে আগামী ১৩ ও ১৪ জানুয়ারী দুইদিন ব্যাপি ওয়াজ মাহফিলের সমাপনি দিন মঙ্গলবার রাত ১০ টায় ড. মিজানুর রহমান আজহারী প্রধান বক্তা হিসেবে বয়ান করবেন।

মাহফিলের শৃঙ্খলা রক্ষায় ৫০০ সেচ্ছাসেবকের পাশাপাশি অতিরিক্ত নিরাপত্তা দিতে প্রস্তুতি নিচ্ছে পুলিশ ও গ্রামপুলিশ। মাদ্রাসা গভর্নিং বডির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মুহাম্মদ সিরাজ উদ্দিন জানান, এ দিন বিশাল সংখ্যক ধর্মপ্রাণ মুসল্লির আগমনের লক্ষ্য নিয়ে আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি।

প্রথমদিন ১৩ জানুয়ারী বয়ান পেশ করবেন রাত ১০টায় মাওলানা মুফতি আমির হামজা (কুষ্টিয়া), মাওলানা ড. শহিদুল ইসলাম বারাকাতী (ঢাকা), মাওলানা হোসাইন মাহফুজ (চুয়াডাঙ্গা), মাওলানা কাজী আব্দুর রহমান (চান্দগ্রামী), মাওলানা কমর উদ্দীন (দৌলতপুরী) ও হাফিজ সফর উদ্দীন (শাহবাজপুরী)।

এদিকে জনপ্রতিনিধিসহ গন্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে মাদ্রাসার গত বার্ষিক পরীক্ষায় ৬ষ্ঠ থেকে আলিম পর্যন্ত সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত ০৩ জন কৃতী শিক্ষার্থীকে ‘স্টুডেন্ট অব দি ইয়ার’ হিসেবে পুরস্কৃত করা হবে। এছাড়া মাদ্রসার হিফজ শাখার সদ্য হিফজ সম্পন্নকারী ০২ জন হাফেজকে পাগড়ী প্রদান করা হবে। আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করবেন পীরে কামিল হাফেজ আব্দুল গফফার রায়পুরী।

বড়লেখা থানার ওসি (তদন্ত) মো. জসীম জানান, মাওলানা ড. মিজানুর রহমান আজহারীর আগমনের বিষয়টি আয়োজকরা পুলিশকে অবহিত করেছেন। ব্যাপক লোক-সমাগমের সম্ভাবনাকে মাথায় রেখে পুলিশ সবধরণের আইনগত নিরাপত্তা দিতে প্রস্তুতি নিচ্ছে।

Sharing is Caring!

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর