সাগরনালে প্রতিদিন একজনকে খাদ্যসামগ্রী দিচ্ছেন রিপন

রিপনের এমন কার্যক্রম দেশে লক ডাউন শেষ না হওয়া পর্যন্ত চলবে

  • আপডেট টাইম : April 01 2020, 13:12
সাগরনালে প্রতিদিন একজনকে খাদ্যসামগ্রী দিচ্ছেন রিপন

এমদাদুল হক:

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসমাগম এড়াতে এবং সামাজিক সচেতনতার অংশ হিসেবে সংস্পর্শ এড়িয়ে চলতে সারাদেশে অঘোষিত লক ডাউন চলছে। যারফলে চরম বিপর্যয়ে পড়েছেন সমাজের দিনমজুর, অসচ্ছল ও খেটে খাওয়া মানুষ। আর অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছেন হৃদয়বান ও বিত্তবানরা।

মৌলভীবাজার জেলার জুড়ি উপজেলার সাগরনাল ইউনিয়নেও করোনাভাইরাস প্রতিরোধে লক ডাউনের প্রভাব পড়েছে। কাজকর্ম না থাকায় চরম বিপাকে পড়েছেন এই এলাকার পিছিয়ে পড়া, হতদরিদ্র ও খেটে খাওয়া মানুষ। অনাহারে অর্ধাহারে দিন কাটাচ্ছে অনেক পরিবার।

এমতাবস্থায় সাগরনাল ইউনিয়নের অসহায় দরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সাগরনাল ইউনিয়নের দক্ষিণ বড়ডহর গ্রামের কৃতী সন্তান ইফতেখার উদ্দিন আহমদ রিপন। প্রতিদিন কমপক্ষে একজনকে খাদ্য সামগ্রী দিয়ে সহযোগিতা করছেন রিপন। তিনি সাগরনাল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল নূর সাহেবের বড় ছেলে। পেশায় তিনি একজন ব্যবসায়ী এবং আওয়ামী রাজনীতির সাথে সক্রিয়।

দানশীল রিপনের এমন কার্যক্রম দেশে লক ডাউন শেষ না হওয়া পর্যন্ত চলবে বলে তিনি জানিয়েছেন। এই রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত ইফতেখার উদ্দিন আহমদ রিপনের পঞ্চম দিনের সহযোগিতা কার্যক্রম চলছিলো।

এক প্রশ্নের জবাবে ইফতেখার উদ্দিন আহমদ রিপন বিডিঅনটিভি’কে বলেন, “বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এবং আমার বাবার দেওয়া শিক্ষা, দুটোকে লালন করেই আমি চলি এবং মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করি। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় আমরা সরকারকে সহযোগিতা করা উচিৎ। তারই অংশ হিসেবে লকডাউন পরিস্থিতি চলাকালীন সময়ে প্রতিদিনই আমি আমার পক্ষ থেকে এই সহযোগিতা চালিয়ে যাবো।”

ইফতেখার উদ্দিন আহমদ রিপন বিডিঅনটিভি ডটকমকে আরও বলেন, “আমার অবস্থান থেকে দেশের চলমান এই ক্রান্তিলগ্নে নিজ এলাকার হতদরিদ্র মানুষকে সহযোগিতা করছি। আমি চাই সমাজের বিত্তবানরা সবাই যেন এই সংকটকালে অসহায় মানুষের পাশে এভাবে আরও বেশি সহযোগিতা নিয়ে এগিয়ে আসে।”

প্রতিদিন কমপক্ষে একজনকে খাবার সামগ্রী দেওয়ার পর অন্যান্য মানুষকে এমন উদ্যোগে উৎসাহিত করতে খাদ্যসামগ্রী বিতরণের ছবি নিজ ফেসবুক টাইমলাইনেও পোস্ট করছেন রিপন। ইফতেখার উদ্দিন আহমদ রিপনের এমন মহতি উদ্যোগ দেখে সাগরনাল ইউনিয়নের লোকজন সহ জুড়ি উপজেলার অনেক লোক এখন অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য উৎসাহিত হচ্ছেন।

ইফতেখার উদ্দিন আহমদ রিপন নিজ ফেসবুক টাইমলাইনে একটি পোস্টে লিখেছেন, “করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রুখতে সারা দেশ আজ লক ডাউনে।আমাদের সাগরনালও প্রায় লক ডাউন। এই অবস্থায় সবচেয়ে শোচনীয় অবস্থা দিনমজুর আর পরিবহন শ্রমিকের পরিবারের মানুষগুলো। আমরা যারা মুটামুটি অর্থনৈতিক ভাবে সচ্ছল, প্রত্যেকে যদি প্রতিদিন আমাদের আশেপাশের কর্মহীন মানুষদের সামান্য সহযোগিতা করতে পারি তাহলে খুব ভালো হয়।”

তিনি আরও লিখেছেন, “আমার সাধ আছে কিন্তু সাধ্য সীমিত, তারপরেও সিদ্ধান্ত নিয়েছি লক ডাউনের কারণে কর্মহীন যে কোন একটি পরিবারের একদিনের খরচ বহন করার চেষ্টা করবো। লক ডাউন যতদিন আছে ততদিন পর্যন্ত আমার এই সহযোগিতা কার্যক্রম অব্যাহত রাখবো, ইন-শা-আল্লাহ।”

রিপনের এই মহতি উদ্যোগের প্রশংসা করে সগরনাল ইউনিয়নের এক প্রবীণ মুরব্বি বিডিঅনটিভিকে বলেন, “সাবেখ চিয়ারম্যান আব্দুল নূর ভাইর ফুয়া অবিকল তার বাফর লাখান অইছে। তার বাফেও গরীব মাইনসর দুঃখ বুঝতা।”

রাকেশ কৈরি নামে এক চা শ্রমিক বিডিঅনটিভিকে বলেন, “রিপন ভাইয়ের জন্য আশীর্বাদ সবসময়। ভাই শুধু করোনাভাইরাস প্রতিরোধে নয়, সংকটময় প্রতিটা মুহূর্তেই উনাকে অসহায়দের পাশে দাঁড়াতে দেখি আমরা।”

(সাগরনালে অসচ্ছল, কর্মহীন ও নিম্ন আয়ের কোন পরিবার থাকলে সহযোগিতা পাওয়ার জন্য ইফতেখার উদ্দিন আহমদ রিপনের যোগাযোগ নাম্বার: ০১৭২৬০৯৮৫০২।)

Sharing is Caring!

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর